অক্টোবর মাসের ১ তারিখ থেকে শুরু হচ্ছে এ বছরের দুর্গোৎসব । তবে কলকাতা সহ সকল পশ্চিমবঙ্গবাসীর জন্য পুজোর ঢাকে কাঠি পড়ছে সামনের মাসেই। 

বাংলার সবচেয়ে বড় উৎসবের UNESCO স্বীকৃতি উদযাপনে ১ সেপ্টেম্বর শোভাযাত্রা করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। 

 এই শোভাযাত্রায় আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল UNESCO-র প্রতিনিধিদেরও। মুখ্যমন্ত্রীর আমন্ত্রণে সাড়া দিয়েছে তারা। 

ওইদিনের শোভাযাত্রায় উপস্থিত থাকবেন UNESCO-র দুই প্রতিনিধি। সেই মর্মে রাজ্যের মুখ্যসচিবকে চিঠি দিলেন সংগঠনের ভূটান, ভারত, মালদ্বীপ এবং শ্রীলঙ্কার প্রতিনিধি এরিক ফাল্ট।

পাশাপাশি বাংলার দুর্গাপুজোর (Durga Puja 2022) জন্য শুভেচ্ছাবার্তা পাঠিয়েছেন UNESCO-র ডিরেক্টর জেনারেল অন্দ্রে আজুলে।

বেলাঘাটার ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে এই বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শুরু হবে। গত ১৫ ডিসেম্বর ২০২১ সালে কলকাতার দুর্গাপুজো UNESCO-র হেরিটেজ তালিকায় স্থান পায়।

দুর্গাপুজোকে বিরল সম্মানে ভূষিত করে নিজেদের ওয়েবসাইটে UNESCO-র তরফে লেখা হয়, "ধর্ম এবং শিল্পকলার মেলবন্ধনের একটি প্রকৃত উদাহরণ বাংলার দুর্গোৎসব।

এতদিন কুটিয়াটম, রাম্মান, রামলিলা, চাহু, কালবেলিয়া ইত্যাদি উৎসব UNESCO-র হেরিটেজ তালিকাতে স্থান পেলেও দুর্গাপূজা ছিল না এই লিস্টে।